Categories
See All >
কর্মব্যাস্ত জীবন ও সুস্থ দেহ !

কর্মব্যাস্ত জীবন ও সুস্থ দেহ !

Beauty Blogs
Hit Count : 104
সুস্থ দেহ সকল সুখের চাবিকাঠি । তাই সুস্থ জীবন যাপনের ইচ্ছা আমাদের সকলের থাকে । কিন্তু এই কর্মব্যাস্ত জীবনে স্বাস্থ্যের দিকে নজর দেওয়াটা কঠিন হয়ে পড়েছে। অস্বাভাবিক এই পরিস্থিতিতে  ব্যক্তির শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটার শঙ্কা রয়েছে !

                                    

 

এই অবস্থাতে মানসিকভাবে নিজেকে সুস্থ রাখার পাশাপাশি তরতাজা ও ফিট থাকাটা অনেক জরুরি। কিন্তু এই আফিস বন্দি ব্যাস্ত অবস্থাতে নিজেকে কিভাবে তরতাজা, ফিট ও হাসিখুশি রাখবেন সেটা নিয়েই ভাবছেন তো?


তাহলে চলুন জেনে নেই কিছু সহজ নিয়ম ।যা আপনার ব্যাস্ত দিনগুলো অনেক বেশি সহনীয় করে তুলবে!


১)নিয়মিত শরীর চর্চা করুন


দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য শরীর চর্চা বা ব্যায়াম করার কোনো বিকল্প নেই। প্রতিদিনের রুটিনে ১৫-২০ মিনিট শরীর চর্চার জন্য আলাদা করে রাখলে আপনার দেহ ও মেদহীন থাকবে এবং আপনি বেশ উৎফুল্ল অনুভব করবেন। শরীর চর্চার মাধ্যমে দেহের ক্লান্তিও দূর হয়।কাজের ফাঁকে ফাঁকে উঠে ঘরের ফ্রি হ্যান্ড ব্যায়াম করুন। স্পট জগিং করলেও ফিটনেস বজায় থাকবে।



২) ঘরের ছোটখাটো কাজ করুন


ঘরের টুকটাক কাজ করলে আপনার দেহ বেশ ঝরঝরে থাকে।  ঘরের ছোটছোট কাজের মধ্যে বিছানা গুছানো ও ঘর ঝাঁট দেয়া অন্যতম। 



৩) ত্বকের সামান্য যত্ন নিন


অবসরে ত্বকের যত্ন নিন, নিয়মিত শ্যাম্পু করে চুলটা সুন্দর রাখুন, অল্পস্বল্প মেকআপ করলেও মন ভালো লাগবে! মন ভালো রাখাটাই শেষ কথা!

                                                          


৪)পুষ্টিকর খাবার খান


পুষ্টিকর হালকা খাবার খাওয়া খুব দরকার যাতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা জোরদার হয়। শাকসবজি, ডাল খান বেশি করে, দিনে অন্তত একটা ফল খাওয়ার চেষ্টা করুন। ফাস্ট ফুড জাতীয় খাবার কম খান ।

 


৫) মুঠোফোন ব্যবহার কম করুন


বিজ্ঞানী ও ডাক্তারদের মতে অতিমাত্রায় মোবাইল  ফোন ব্যবহারে মানুষের মস্তিষ্ক ক্লান্ত হয়ে পরে ও মানুষ দুর্বলবোধ করে। তাই মুঠোফোনের ব্যবহার কমিয়ে দিলে আপনার সারাটা দিন বেশ প্রাণোচ্ছল কাটবে।


৬)পারিবারের সাথে অবসর কাটান


বন্ধু কিংবা পরিবারকে সবসময়ই সঙ্গ দিতে হয়। কিন্তু যখনই সবকিছু বিরক্তিকর হয়ে ওঠে তখন একটা ট্যুর দেয়া উচিত। এতে সকলকে সময় দেয়ার এবং একসাথে উপভোগ করার উপলক্ষ সৃষ্টি হয়। ।


৭) সকালের নাস্তা করুন


প্রাতঃরাশ কিংবা সকালের নাস্তা মানব দেহের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজন। দিনের শুরুতেই যদি আপনি ভালোভাবে নাস্তা গ্রহণ করে নেন তাহলে সারাটা দিন আপনার দেহ বেশ কর্মচঞ্চল থাকবে। সারারাত ঘুমানোর পর আমরা যখন জাগি তখন আমাদের পেট একদমই খালি থাকে। 



৮) সঠিক সময়ে ঘুমিয়ে পড়ুন

                                        

ঘুম শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে তা দেহকে শুধু ক্লান্তই করবে না, এতে দেহের হরমোনের ভারসাম্যও ব্যাহত হবে। তাই যতই ব্যস্ত দিন যাক না কেন, রাতে প্রশান্তির ঘুম বাদ দেবেন না।



৯) কাজ ও স্বাস্থ্যের ভারসাম্য রাখুন


জীবনযাপনে ভারসাম্য বজায় রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য নিজের ওপর যেমন জুলুম করা যাবে না তেমন স্বাস্থ্য বিষয়টিকে অবহেলাও করা যাবে না। 


১০) প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান


পানি পানের বিষয়টি সুস্বাস্থের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, একথা অনেকেই জানেন। কিন্তু বাস্তবে পর্যাপ্ত পানি পান করতে অনীহা দেখা যায় বহু মানুষের মাঝে। 


Written by Erona moumita

31,December,2021


তথ্যসূত্র:

https://www.femina.in/bengali/health/diet-and-fitness

https://www.dhakatimes24.com

https://www.shajgoj.com

https://samakal.com