Categories
See All >
বাঁশ খান, সুস্থ থাকুন

বাঁশ খান, সুস্থ থাকুন

Health Blogs
Hit Count : 101

জনপ্রিয়তা: বাঁশের কোড়ল বা ব্যাম্বু শুট পাহাড়ে বসবাসকারী আদিবাসী জনগোষ্ঠির একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় সবজি যার বহুবিধ ঔষধীগুণ ও রয়েছে। বাঁশের কোড়ল হল বাঁশগাছের কচি কান্ড মুকুল যার বয়স ২ সপ্তাহ হওয়ার আগে অথবা উচ্চতা ১ ফুট হওয়ার আগে সবজি হিসেবে তুলে নিতে হয়। এর মুচমুচে টেক্সচারের জন্য অনেক মানুষ এটি খেতে পছন্দ করেন। বাঁশের কোড়লে নানান পুষ্টি উপাদান বিদ্যমান। আবার এটিতে ক্যালোরী ও ফ্যাটের পরিমান খুবই কম।

বাঁশের কোড়লের উপকারিতাঃ




১।কোলেস্টেরল কমায়– বাঁশের কোড়লে প্রচুর পরিমানে তন্তু বা ফাইবার থাকার কারণে এটি রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। নিয়মিত বাঁশের কোড়ল খাওয়া হলে এটি খারাপ কোলেস্টেরলের (LDL – Low Density Lipoprotein) মাত্রা কমিয়ে দেয়।


২।হার্টের রোগীদের জন্য উপকারী– বাঁশের কোড়লে উপস্থিত ফাইটো নিউট্রিয়েন্টগুলি আমাদের হার্টকে সুস্ব্য রাখে এবং খারাপ LDL কোলেস্টেরলকে রক্তে দ্রবিভূত হতে দেয় না। এতে উপস্থিত পটাশিয়াম হার্ট বিট স্থিতিশীল রাখতে সহায়তা করে।


৩।ওজন কমাতে সহায়তা করে– বাঁশের কোড়লে ক্যালোরী ও ফ্যাটের পরিমান অত্যন্ত কম থাকে আর তন্তুর পরিমান বেশি থাকে। যারা নিজেদের অতিরিক্ত ওজন কমাতে চান তাদের জন্য এটি একটি আদর্শ খাবার। এতে উপস্থিত তন্তু পেট ভর্তি রাখে আর খিদে কমায়।


৪।ক্যানসার প্রতিরোধী– এতে উপস্থিত ফাইটোনিউট্রিয়েন্টসগুলি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ, যা শরীরের অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কমায়। এই অক্সিডেটিভ স্ট্রেস আমাদের শরীরের কোশে অবস্থিত ক্রোমোজোমের DNA গুলির ক্ষতি সাধন করে ক্যানসার ঘটায়। এতে উপস্থিত সামান্য পরিমান ক্লোরোফিল কোশের মিউটেশনে বাঁধা দিয়ে ক্যানসার প্রতিরোধ করে।


৫।বাঁশের কোড়ল বা ব্যাম্বু শুট- সবজি হিসেবে নিয়মিত খেলে এটি শরীরের যে কোন অংশের প্রদাহ কমাতে পারে। ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক বা ভাইরাসের আক্রমণ জনিত প্রদাহ কমে যায় এটি নিয়মিত ডায়েটে রাখলে।


৬।কোষ্ঠো কাঠিন্য দূর করে– বাঁশের কোড়লে উপস্থিত তন্তুগুলি বৃহদন্ত্র থেকে মুত্রের নির্গমন সহজতর করে কোষ্ঠোকাঠিন্য দূর করে। নিয়মিত বাঁশের কোড়ল খেলে কোষ্ঠ কাঠিন্য দূর হয়।


৭।রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়– এতে বিভিন্ন প্রকারের খনিজ ও ভিটামিন থাকার কারণে এটি রোগপ্রতিরোধে সহায়তা করে। বাঁশের কোড়ল সেদ্ধ করা পানির সাথে মধু মিশিয়ে খেলে গলা বসা বা ব্যাথায় আরাম পাওয়া যায়।


৮।স্ক্লেরোসিস রোধ করে– এটি রক্ত সংবহনতন্ত্রে কোলেস্টেরল জমতে দেয়না ফলে রক্তের প্রবাহ বজায় রাখতে সাহায্য করে, ফলে হৃদরোগ কম হয়।


৯।হাড় শক্ত করে– এতে যে পরিমান ক্যালসিয়াম থাকে তা আমাদের অস্থিতন্ত্রকে মজবুদ রাখতে সহায়তা করে এবং হাড় শক্ত করে।


১০।রক্তাল্পতা কমায়– এতে উপস্থিত লৌহ রক্তাল্পতা কমাতে সহায়তা করে। যাদের রক্ত সল্পতার সমস্যা আছে তারা বাঁশের কোড়ল খেতে পারেন।